1. [email protected] : Joyanta Goswami : Joyanta Goswami
  2. [email protected] : Developer :
  3. [email protected] : News Point : News Point
সোমবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২২, ০২:০১ পূর্বাহ্ন

নিউজ পয়েন্ট সিলেট

বৃহস্পতিবার, ৮ এপ্রিল, ২০২১

ষড়যন্ত্র মূলক মিথ্যা ধর্ষণ চেষ্টা মামলায় সাংবাদিক হাসান গ্রেপ্তার


নিউজ পয়েন্ট ডেস্কঃ বরগুনার তালতলীতে ষড়যন্ত্র মূলক মিথ্যা মামলায় একজন গনমাধ্যমকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টা মামলা দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে রাসেল গং।

গত ৬ এপ্রিল আবুল হাসান নামে স্থানীয় একজন সাংবাদিককে গ্রেপ্তার করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীয় গনমাধ্যমকর্মীরা। তারা অনতিবিলম্বে তদন্ত পূর্বক একজন গণমাধ্যম কর্মীকে অপদস্ত করী রাসেল গং এর বিরুদ্ধে শাস্তি দাবী করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার পঁচাকোড়ালিয়া ইউনিয়নের মনসাতলী গ্রামের বাসিন্দা সাংবাদিক আবুল হাসান”র পরিবারের সাথে একই গ্রামের রাসেল গংদের সাথে দীর্ঘদিন ধরে জমিজমা সংক্রান্ত্র বিরোধ ছিল। এ ব্যপারে উভয় পক্ষে পাল্টাপাল্টি একাধিক মামলা চলমান রয়েছে বলে জানাগেছে। এ বিষয়ে বহুবার স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গের উপস্থিতিতে সালিশ বৈঠকের ব্যবস্থা হলেও ঘটনা যেন বাড়তেই থাকে। সাংবাদিক হাসান ও তার পরিবারকে কোন ভাবেই দমন করতে না পেরে গত ১৩ই মার্চ বিকেলে হাসান’র পরিবারের সাথে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে জনৈক আলমগির হোসেন’র মেয়ে প্রতিপক্ষ রাসেল এর ভাগ্নি সাদিয়া, রাসেল এর মেয়ে লামিয়া ধর্ষণ মামলা দেয়ার উদ্দেশ্যে সাংবাদিক আবুল হাসানকে জাপটে ধরতে চেষ্টা করে। এ সময় সাংবাদিক আবুল হাসান এঘটনা মোবাইলে ভিডিও ধারণ করে দৌড়াতে থাকে যা পরে স্থানীয় শত শত লোক প্রত্যক্ষ করেছে। এবং তাৎক্ষণিক তালতলী থানা পুলিশকে বিষয়টি অবহিত করা হয়।

অপরদিকে রাসেল তার মেয়ে ও ভাগ্নি সাদিয়াকে দিয়ে সাদিয়ার পিতা মাতা ও পরিবারের ইচ্ছার বিরুদ্ধে রাসেল বাদী হয়ে আবুল হাসানের নামে মিথ্যা ষড়যন্ত্রমূলক ধর্ষণ চেষ্টায় নারী শিশু নির্যাতন দমন আইন (২০০০ সংশোধিত ২০০৩) এর ১০ ধারায় বিজ্ঞ আদালতে একটি মামলা রুুজু করেন।

বিজ্ঞ আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে তালতলী থানায় এজাহার নেয়ার অদেশ দেয়। এবং সেই মিথ্যা মামলায় গত ৬ এপ্রিল আবুল হাসান গ্রেপ্তার হন। এ বিষয় সাদিয়ার পিতা আলমগীর হোসেন বলেন মামলাটি সম্পূর্ণ মিথ্যা, মেয়েটি আমার কথা শোনেনা সে আমার নিয়ন্ত্রনের বাইরে চলে গেছে। সে তার মামা রাসেলের নিয়ন্ত্রণে। একই কথা বললেন সাদীয়ার চাচা জাহাঙ্গীর আলম। তালতলী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ কামরুজ্জামান মিয়ার সাথে ভিডিও সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন,আমার কাছে সাংবাদিক হাসান বা তার পক্ষ থেকে কেউ এরুপ কোন ভিডিও দেয় নাই, দিলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার মতামত দিন
এই বিভাগের আরও খবর

সিলেটের সর্বশেষ
© All rights reserved 2020 © newspointsylhet