1. [email protected] : Joyanta Goswami : Joyanta Goswami
  2. [email protected] : Developer :
  3. [email protected] : News Point : News Point
সোমবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২২, ০১:৪৪ পূর্বাহ্ন

নিউজ পয়েন্ট সিলেট

মঙ্গলবার, ২০ জুলাই, ২০২১

লবণের সংকট নেই বরং ন্যায্যমূল্য না পাওয়ায় মাঠেই পড়ে আছে ৮লাখ মেট্রিক টম্ন


দেশে লবণের সংকট নেই, বরং ন্যায্যমূল্য না পাওয়ায় অবিক্রিত অবস্থায় মাঠেই পড়ে আছে প্রায় ৮ লাখ মেট্রিক টন। চাষিদের দাবি, উৎপাদনের মৌসুম শেষ হলেও ন্যায্যমূল্য না পেয়ে মাঠে গর্ত করে লবণ মজুদ করা হয়েছে। দেশের চাহিদা মিটিয়ে আরও ১১ লাখ মেট্রিক টন লবণ বেশি মজুদ রয়েছে। ফলে দেশে লবণ সংকটের কোনো আশঙ্কা নেই বলে জানিয়েছেন মিলাররা।

কক্সবাজার সদরের ইসলামপুরের লবণ চাষিদের সবাই গেল মৌসুমে লবণ চাষ করেছেন। কেউ করেছেন একশ ২০ শতক আবার কেউ করেছেন দুশো ৪০ শতকে। মৌসুমে লবণ উৎপাদনও ভালো হয়েছে। কিন্তু মে মাসে লবণ মাঠ ছাড়লেও চাষিরা রয়েছেন দুঃশ্চিতায়।

চারদিকে পানি আর পানি। এসব পানির মাঝে রয়েছে কিছু মাটির স্তুপ। স্তুপের মধ্যে পলিথিন মুড়িয়ে মাটি চাপা দিয়ে মজুদ করা হয়েছে শত শত মণ লবণ। চাষিদের দাবি, ন্যায্যমূল্য না পেয়ে মাটিতে পুঁতে রেখেছেন লবণ।
ইসলামপুরে রয়েছে ৫০টির বেশি লবণ মিল। প্রতিটি মিলে শ্রমিকরা করছেন লবণ প্রক্রিয়াকরণ ও মজুদের কাজ। মিলের দায়িত্বরতরাও জানালেন, প্রতিটি মিলে প্রচুর পরিমাণ লবণ মজুদ রয়েছে। যা সারাদেশে সরবরাহ করা হচ্ছে।
আর মিল মালিক সমিতির সভাপতি সামশুল আলম আজাদ জানালেন, কোরবানি আসলেই কিছু সিন্ডিকেট ব্যবসায়ী লবণ সংকটের সৃষ্টি করে। অতিরিক্ত ১১ লাখ মেট্রিক টন লবণ মজুদ আছে বলে জানান তিনি।
বিসিক জানায়, দেশে ২২ লাখ ১৭ হাজার মেট্রিক টন চাহিদার মধ্যে চলতি মৌসুমে লবণ উৎপাদন হয় সাড়ে ১৬ লাখ মেট্রিক টন। গত বছরের অবিক্রিত ছিল সাড়ে ৩ লাখ মেট্রিক লবণ। আর ৯ লাখ ১৬ হাজার মেট্রিক টন লবণ বিদেশ হতে আমদানি করা হয় বলে জানিয়েছে মিল মালিক সমিতি।
আপনার মতামত দিন
এই বিভাগের আরও খবর

সিলেটের সর্বশেষ
© All rights reserved 2020 © newspointsylhet