1. [email protected] : Joyanta Goswami : Joyanta Goswami
  2. [email protected] : Developer :
  3. [email protected] : News Point : News Point
শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০৪:২৮ পূর্বাহ্ন

নিউজ পয়েন্ট সিলেট

রবিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২১

ফাইনালে ৪-০ গোলের জয়ে বার্সার শিরোপা উৎসব


ক্রীড়া ডেস্ক :

একের পর এক আক্রমণে দুর্দান্ত শুরুর পর ক্ষণিকের ছন্দপতন। এরপর গোল উৎসব। ১২ মিনিটের মধ্যে প্রতিপক্ষের জালে চারবার বল পাঠাল বার্সেলোনা। আথলেতিক বিলবাওকে উড়িয়ে কোপা দেল রের শিরোপা জিতল রেকর্ড চ্যাম্পিয়নরা।

সেভিয়ার লা কার্তুসা স্টেডিয়ামে শনিবার রাতে ফাইনালে ৪-০ গোলে জিতেছে রোনাল্ড কুমানের দল। জোড়া গোল করেন লিওনেল মেসি, একটি করে অঁতোয়ান গ্রিজমান ও ফ্রেংকি ডি ইয়ং।
কুমানের কোচিংয়ে এটিই কাতালান দলটির প্রথম শিরোপা। স্পেনের দ্বিতীয় সেরা প্রতিযোগিতায় এই নিয়ে রেকর্ড ৩১তম শিরোপা জিতল বার্সেলোনা।
লা লিগায় টানা ১৯ ম্যাচ অপরাজিত থাকার পর গত শনিবার রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে ২-১ গোলে হেরে যায় বার্সেলোনা। এক সপ্তাহ বাদে এই জয়ের মধ্য দিয়ে শিরোপা খরাও কাটাল তারা। দীর্ঘ এক যুগের মধ্যে গতবার শিরোপাশূন্য মৌসুম কাটিয়েছিল দলটি।

ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া বার্সেলোনা শুরু থেকেই চাপ তৈরি করে। মেসির নৈপুণ্যে প্রথম ১০ মিনিটে দারুণ দুটি সুযোগও পায় তারা। কিন্তু স্কোরলাইনে পরিবর্তন আসেনি।

পঞ্চম মিনিটে সতীর্থের উঁচু করে বাড়ানো বল অফসাইডের ফাঁদ ভেঙে ডি-বক্সে ধরে ডি ইয়ংকে ব্যাকপাস করেন মেসি। কিন্তু ডাচ এই মিডফিল্ডারের কোনাকুনি শট বাধা পায় পোস্টে। পাঁচ মিনিট পর অধিনায়কের রক্ষণচেরা পাস ডি-বক্সে ফাঁকায় পেয়েও শট না নিয়ে ব্যাকপাস করেন গ্রিজমান।

প্রথম ২৫ মিনিটে ৮৫ শতাংশের বেশি সময় বল দখলে রেখে গোলের উদ্দেশে ছয়টি শট নেয় বার্সেলোনা, যার একটি লক্ষ্যে। প্রথমার্ধের বাকি সময়েও বল দখলে একচেটিয়া আধিপত্য করে তারা, কিন্তু ছিল না শুরুর ধার। পরের ২০ মিনিটে আর কোনো শটই নিতে পারেনি তারা!
বিরতির আগে অধিকাংশ সময় রক্ষণ সামলাতে ব্যস্ত বিলবাও দুয়েকবার পাল্টা আক্রমণে গেলেও কখনোই তেমন সম্ভাবনা জাগাতে পারেনি।

দ্বিতীয়ার্ধের তৃতীয় মিনিটে সহজ সুযোগ নষ্ট করেন গ্রিজমান। মেসির দারুণ পাস ডি-বক্সে পেয়ে গোলমুখে বাড়ান সের্জিনো দেস্ত। ছুটে যান গ্রিজমান, সামনে একমাত্র বাধা গোলরক্ষক। তবে ফরাসি ফরোয়ার্ডের স্লাইড পা দিয়ে রুখে দেন উনাই সিমোন।

খানিক পর আরও দুটি দারুণ সেভ করেন এই স্প্যানিশ গোলরক্ষক। ৫২তম মিনিটে পেদ্রির নিচু শট ঝাঁপিয়ে ঠেকানোর পর কাছ থেকে সের্হিও বুসকেতসের শট পা দিয়ে ঠেকান সিমোন।
চাপ ধরে রাখার ফল ৬০তম মিনিট পায় বার্সেলোনা। ডান দিক থেকে ডি ইয়ংয়ের দারুণ ক্রসে ছয় গজ দূর থেকে ঠিকানা খুঁজে নেন গত সপ্তাহের ক্লাসিকোয় শুরুর একাদশে সুযোগ না পাওয়া গ্রিজমান।

পিছিয়ে পড়ার ধাক্কা বিলবাও সামলে উঠবে কী, পরের ১২ মিনিটের মধ্যে আরও তিন গোল হজম করে ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় তারা।

৬৩তম মিনিটে জর্দি আলবার ক্রসে ছয় গজ দূর থেকে নিচু হয়ে হেডে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ডি ইয়ং। পরের দুই গোল সময়ের সেরা ফুটবলার মেসির।

৬৮তম মিনিটে মাঝমাঠ থেকে ছোটার পথে সতীর্থের সঙ্গে বল দেওয়া নেওয়া করে ডি-বক্সে ঢুকে ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে কোনাকুনি শটে নিজের প্রথম গোলটি করেন আর্জেন্টাইন তারকা। চার মিনিট পর আলবার বাঁ দিক থেকে বাড়ানো পাস ডি-বক্সে পেয়ে প্রথম ছোঁয়ায় নিচু শটে স্কোরলাইন ৪-০ করেন তিনি।

শেষ দিকে আবারও জালে বল পাঠিয়েছিলেন বিশ্বকাপ জয়ী ফরাসি ফরোয়ার্ড গ্রিজমান। তবে অফসাইডের বাঁশি বাজে। অবশ্য তাতে তাদের শিরোপা উদযাপনে কোনো ভাটা পড়েনি।

২০১৮-১৯ মৌসুমে লা লিগা জয়ের পর এই কোপা দেল রে শিরোপা। মাঝে দুই বছরের ব্যবধান। বার্সেলোনার মতো দলের জন্য অবশ্যই দীর্ঘ অপেক্ষা। তবে, এই শিরোপার মূল্য আরেক দিক থেকে অনেক বেশি; দল ছাড়তে চাওয়া মেসি কী এখন নতুন করে অনুপ্রেরণা পাবেন কাম্প নউয়ে থেকে যেতে?জবাব মিলবে আগামী ১০ সপ্তাহে।

আপনার মতামত দিন
এই বিভাগের আরও খবর

সিলেটের সর্বশেষ
© All rights reserved 2020 © newspointsylhet