1. [email protected] : Joyanta Goswami : Joyanta Goswami
  2. [email protected] : Developer :
  3. [email protected] : News Point : News Point
বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ০৯:৫০ অপরাহ্ন

নিউজ পয়েন্ট সিলেট

সোমবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২০

ধর্ম ব্যবসায়ীদের কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন সাকিব: বিচারপতি মানিক


নিউজ পয়েন্ট ডেস্কঃ বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক বলেছেন, ধর্ম ব্যবসায়ীদের কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন জাতীয় দলের ক্রিকেটার এবং সাবেক অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

একটি গণমাধ্যমে দেয়া বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। সম্প্রতি কলকাতার একটি পূজা অনুষ্ঠানে অংশ নিলে দেশব্যাপী আলোচনা সমালোচনার ঝড় উঠলে ফেসবুকে নিজের ভেরিফায়েড পেজ থেকে লাইভে এসে এর জন্য ক্ষমা চান সাকিব। এটা তাঁর উচিত হয়নি বলেও মন্তব্য করেন তিনি। সাকিবের এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের সাবেক এই বিচারক।

বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক বলেন, “যেদিন শুনলাম সাকিব কলকাতায় যাচ্ছেন শ্যামা পূজার অনুষ্ঠানে যোগ দিতে, সেদিন আনন্দে বুকটা ভরে উঠেছিল এই ভেবে যে, আমাদের বিশ্বজয়ী টাইগারদের নেতৃস্থানীয়জন দ্বারা শ্যামা পূজার উদ্বোধন, সম্প্রীতির উজ্জ্বল, অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করতে যাচ্ছে। কিন্তু দুই দিন পরেই হলো ছন্দ পতনের পালা।”

তিনি বলেন, “মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী, মুজিব আদর্শের ধারক, ধর্মনিরপেক্ষ এবং অসাম্প্রদায়িকতার ধারণাকে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম চেতনা হিসেবে যারা ধারণ করেন তাদের সবাইকে মারাত্মকভাবে হতাশ করে, মর্মাহত করে, ক্ষুব্ধ করে আমাদের কথিত ব্যাঘ্ররাজ সাকিব আসলে ধর্ম ব্যবসায়ীদের রক্তচক্ষু দেখে রণে ভঙ্গ দিয়েছেন। ঘটনাটা অনেকটা এমন বাঘ শিকারে প্রস্তুতি নিয়ে যখন দেখল একদল হরিণ তেড়ে আসছে তখন সে পিছুু হটল। এর মধ্যে অবশ্য এক মগজ ধোলাই করা ধর্মান্ধ ফেসবুকে সাকিবকে হত্যা করার ভয় দেখাল।”

সাকিবের এমন পিছুটানের ঘটনায় তিনি আরো বলেন, “হত্যার ভীতি নিশ্চিতভাবে প্রায় সবাইকে শঙ্কিত করে। কিন্তু বিচক্ষণ মানুষদের উচিত সেই ভীতি ঠেকানোর জন্য কার্যকর পন্থা অনুসরণ করা, ভীতিকারদের কাছে আত্মসমর্পণ করা নয়। আমি যখন কাদের মোল্লার ফাঁসির রায় দেওয়ার জন্য হাই কোর্টের পথে তখন বেশ কয়েকজন আমাকে হত্যার ভয় দেখিয়েছিল। আমি সেই ভয়কে মোটেও ভ্রূক্ষেপ করিনি। তাদের ভয়ে সেদিন ভীত হলে তা হতো দেশের প্রতি চরম বিশ্বাসঘাতকতা। দেশের মানুষ আমাকে নর্দমায় নিক্ষেপ করতেন। সব হুমকি উপেক্ষা করে আমি কোর্টে পৌঁছে অন্য তিন মাননীয় বিচারপতির সঙ্গে কাদের মোল্লার ফাঁসির আদেশে দস্তখত করেছিলাম। একজন স্বাভাবিক মানুষের কাছ থেকে এটাই প্রত্যাশা হওয়ার কথা।”

আপনার মতামত দিন
এই বিভাগের আরও খবর

সিলেটের সর্বশেষ
© All rights reserved 2020 © newspointsylhet