1. [email protected] : Joyanta Goswami : Joyanta Goswami
  2. [email protected] : Developer :
  3. [email protected] : News Point : News Point
মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ০১:০৮ পূর্বাহ্ন

নিউজ পয়েন্ট সিলেট

বৃহস্পতিবার, ১০ জুন, ২০২১

আর কেউ স্মরণ না করলেও মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী এমপি’কে স্মরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী


নিউজ পয়েন্ট সিলেট ডেস্কঃ দক্ষিণ সুরমা উপজেলা মডেল মসজিদ ও ইসলামি সাংস্কৃতিক কেন্দ্র ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধনকালে প্রয়াত মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী এমপি’কে দুই বার স্মরণ করে নির্বাচনী এলাকার জনগনকে ধন্য করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ভিডিও কনফারেন্সে সংযুক্ত হয়েছিলেন দক্ষিণ সুরমা উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল হক, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাইফুল আলম ও জৈনিক এক মুসল্লী।
এই তিন জনের মধ্যে কেউই প্রয়াত মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী’র নাম স্মরণ না করলেও স্মরণ করতে ভূললেন না প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
দেশ পরিচালনার বিশাল দায়িত্ব কাদে তাকলেও মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী’র কথা ভূলেননি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দক্ষিণ সুরমার সাথে ভিডিও কনফারেন্সে সংযুক্ত হয়ে প্রথমে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দুঃখজনক যে এমপি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী মারা গেলেন সেটা খুবই দুঃখজনক, তার আত্মার মাঘফেরাত কামনা করি, আজ সে বেচে তাকলে খুব খুশি হতো।
প্রধানমন্ত্রী বক্তব্যের সমাপ্তিকালে পূণরায় বলেন আমাদের সংসদ সদস্য যিনি প্রয়াত মাহমুদ উস সামাদ, তার জন্য সবাই দুয়া করবেন।
এই কথাগুলো বলতে গিয়ে তিনি আবেগআপ্লুত হয়ে পড়েন।

প্রধানমন্ত্রীর মূখে বিভিন্ন গণমাধ্যম থেকে এই কথাগুলো সুনার পর সিলেট ৩ নির্বাচনী এলাকার দলীয় নেতা-কর্মী ও সাধারণ মানুষ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানান।
১০ জুন- বৃহস্পতিবার সকালে ১৩ কোটি টাকা ব্যায়ে দক্ষিণ সুরমা উপজেলা মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র আন্তরিকতায়, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ও স্থানীয় সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী’র অক্লান্তিক প্রচেষ্টায় সিলেট জেলার ১৪ টি মসজিদের মধ্যে প্রথম দক্ষিণ সুরমা উপজেলার মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণ কাজ যথা সময়ের ভিতরে শেষ হয়।
২০১৮ সালের ৫ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে স্থানীয় সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী’র উপস্থিতিতে দক্ষিণ সুরমা উপজেলা মডেল মসজিদের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন,
এর ৩ বছরের মাথায় মসজিদটির ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নব নির্মিত মসজিদটির উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
দেশে ৫৬০ টি উপজেলা মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণে অর্থ প্রদানের কথা সৌদি সরকারের, কিন্তু সৌদি সরকার কথা দিয়ে কথা রাখেনি।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের অর্থায়নে মসজিদগুলো নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করেন এরই ধারাবাহিকতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৮ সালের ৫ ই এপ্রিল দক্ষিণ সুরমা সহ প্রথমে দেশের ১০ টি উপজেলা মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেছিলেন।

দক্ষিণ সুরমা উপজেলা মডেল মসজিদ প্রায় ৪৩ শতক ভূমির উপর নির্মাণ হয়েছে। দক্ষিণ সুরমা উপজেলা চত্ত্বরের ভিতরে ভূমি পাওয়া সম্ভব চিলনা, এই মসজিদটির নির্মাণ প্রকল্পটি ফেরত যাওয়ার উপক্রম ছিলো।
তৎকালীর স্থানীয় সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী মসজিদ নির্মাণ প্রকল্প যাতে ফেরত না যায় সেজন্য তিনি আপ্রান চেষ্টা চালান,
মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী এমপি’র প্রচেষ্টায় দক্ষিণ সুরমা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্ত্বরে মসজিদ নির্মাণের স্থান নির্ধারণ করা হয়,
এই স্থানে মসজিদ নির্মাণ করতে গিয়ে এমপি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সহ বিভিন্ন স্থানে বার বার ডিও লেটার প্রদান করেন ও জোর প্রচেষ্টা চালান,
তার এই এক্লান্তিক প্রচেষ্টায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চত্ত্বরে মসজিদটি নির্মাণ করা সম্ভব হয়েছে।
এব্যাপারে তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী অফিসার বর্তমান হবিগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মিন্টু চৌধুরী, তৎকালীন দক্ষিণ সুরমা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সাঈদ এনাম ও বর্তমান দক্ষিণ সুরমা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ ময়নুল আহসান এই স্থানে মসজিদটি নির্মাণে সর্বাত্মক সহযোগিতা করেন।
৩ তলা বিশিষ্ট দৃষ্টিনন্দন এই মসজিদটি দেখে জনসাধারণ বার বার প্রয়াত মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী এমপি’র কথা স্মরণ করেন,
দক্ষিণ সুরমার দলীয় নেতা-কর্মী সহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার লোকজন আশা করেছিলেন মসজিদটির ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রয়াত মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী এমপি উপস্থিত থেকে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি উপভোগ করবেন,
কিন্তু অত্যান্ত দুঃখজনক গত ১১ ই মার্চ মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী এমপি’র অকাল মৃত্যু হয়,
এই মসজিদটির নির্মাণ কাজ শুরু হলে মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী এমপি কয়েক বার নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করেন,
এছাড়া মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী এমপি ধর্ম মন্ত্রনালয়ের সংসদিয় স্থায়ী কমিটির সদস্য থাকায় তৎকালীন ধর্ম মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী শেখ মোঃ আব্দুল্লাহকে নিয়ে মসজিদটির নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করেন।
তারা দুজনেই আজ আমাদের মাজে নেই,
আল্লাহ যেন তাদের জান্নাতবাসী করেন।
মসজিদটি উদ্বোধন করা হলেও ইমাম, মুয়াজ্জিন, খাদিম নিয়োগের আবেদনকারীদের লিখিত ও মৌখিক পরিক্ষা নেয়া হয়েছে কিন্তু এখনো নিয়োগ দেয়া হয়নি, স্ব স্ব উদ্যোগে মুসল্লীরা নামাজ আদায় করতে দেখা যায়।
ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মসজিদটির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের দাওয়াতের ব্যাপারে দলীয় নেতা-কর্মী ও স্থানীয় জনগনের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া ও ক্ষোভ দেখা যায়,
শুধুমাত্র দক্ষিণ সুরমা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকের জন্য আসনে নাম লিখিত দুইটি চেয়ার রাখা হয়,
কিন্তু যে বিভাগের ভূমিতে মসজিদটি নির্মাণ করা হলো সিলেট জেলা সিভিল সার্জন, দক্ষিণ সুরমা উপজেলার টিএইচও তাদের জন্য আসন এমনকি
দক্ষিণ সুরমা প্রেসক্লাবের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও দক্ষিণ সুরমা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের নাম সম্বলিত চেয়ার রাখা হয়নি তাই তাৎক্ষনিকভাবে উপস্থিত সিলেট বিভাগীয় কমিশনার খলিলুর রহমানের কাছে প্রতিবাদ জানানো হয়।

এছাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র সাথে ভিডিও কনফারেন্সে সংযুক্ত হলে তিনি শুধু প্রশাসনের বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তাদের উপস্থিত রয়েছেন জানালেও প্রধানমন্ত্রীর কাছে সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ,সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নাসির উদ্দীন, সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আবু জাহিদ সহ উপস্থিত ব্যাক্তিবর্গের নাম না বলায় দলীয় নেতা -কর্মী ও সাধারণ মানুষের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।
তাছাড়া প্রয়াত সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী’র পরিবারকে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মোঃ ফরিদুল হক খান এমপি টেলিফোনে আমন্ত্রণ জানালেও স্থানীয় প্রশাসন আমন্ত্রণ জানাননি।
এমনকি স্থানীয় প্রশাসন ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রীর সাথে জৈনিক এক মুসল্লিকে সংযুক্ত করিয়ে দিলে স্থানীয় লোকজন বলেন এই লোককে তারা কেউ চিনেন না।
এসব বিষয় নিয়ে দিনভর দক্ষিণ সুরমার মানুষের মধ্যে ছিলো আলোচনা -সমালোচনা।

আপনার মতামত দিন
এই বিভাগের আরও খবর

সিলেটের সর্বশেষ
© All rights reserved 2020 © newspointsylhet